Saturday, March 02, 2024
ক্রিকেটখেলা

২০২৪ টি-২০ বিশ্বকাপে শিরোপা জিতবে কোন দল ভবিষ্যদ্বাণী করলেন নাসের

বিদায় নিয়েছে ২০২৩ সাল। শুরু ২০২৪। চলতি বছরে আছে ক্রিকেটের অন্যতম বড় আসর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। ২০২৪ সালের জুনে ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবং যুক্তরাষ্ট্রে বসবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের এবারের আসর।

ক্রিকেট ইতিহাসে এবারি প্রথম ক্রিকেটের কোনো বড় আসর হতে যাচ্ছে বিশ্বের অন্যতম বড় অর্থনীতির দেশ যুক্তরাষ্ট্রে। এই আসরে অংশ গ্রহন করবে ২০টি দল। ২০২৪ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ সবার মধ্যে উত্তেজনা কাজ করছে। কেননা ২০ দল নিয়ে হবে এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ।

তবে বিশ্বকাপ শুরু হতে এখনও বাকি প্রায় ৫ মাস। তার আগেই এই নিয়ে শুরু হয়ে গেছে আলোচনা ও ভবিষ্যদ্বাণী। ২০২৪ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ নিয়ে ভবিষ্যদ্বাণী করেছেন ইংল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ক এবং বর্তমানের ধারাভাষ্যকার নাসের হুসেইন। আসন্ন আসরে শিরোপা উঠবে কার হাতে, ফাইনাল খেলবে কোন দুই দল এবং আসরের সেরা ক্রিকেটার সবকিছুই বেছে নিয়েছেন তিনি।

আরও পড়ুন: পাকিস্তানের একাদশ দেখে অবাক হার্শা

আইসিসির একটি অনুষ্ঠানে ধারাভাষ্যকার নাসের বলেন, ‘আসলে আমি এই ব্যাপারে (বিশ্বকাপের চ্যাম্পিয়ন) খুব বেশি কিছু ভাবিনি। তবে আমি দক্ষিণ আফ্রিকাকে বেছে নেব (চ্যাম্পিয়ন হিসেবে)। ইংল্যান্ড বর্তমান চ্যাম্পিয়ন, কিন্তু তারা এই মুহূর্তে খুব বেশি ভালো ক্রিকেট খেলছে না। খেলা ক্যারিবিয়ানে হবে এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজও ঠিকঠাক আছে। এরপর পাকিস্তানও আছে, আমি কি এই সবগুলো দলকে পছন্দ করতে পারি? আমি দক্ষিণ আফ্রিকা এবং ইংল্যান্ডের মধ্যে ফাইনাল দেখছি।’

সদ্য শেষ হওয়া ভারতে অনুষ্ঠিত আইসিসি ওয়ানডে বিশ্বকাপেই ভালো খেলেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। দুর্দান্ত পারফরম্যান্স দেখিয়ে সেমি ফাইনালে উঠেছিল তারা। তবে অস্ট্রেলিয়ার কাছে হেরে বিদায় নিতে হয় তাদের। তবে তাদের লড়াকু মানসিকতার প্রশংসা করেছেন সকলে।

দক্ষিণ আফ্রিকার এমন উন্নতিতে ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি ফ্র্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্ট এসএ২০ এর অবদানও আছে বলে মনে করেন নাসের। তিনি বলেন, ‘আমার মনে হয় তাদের এসএ২০ টুর্নামেন্টটি কিছু ক্রিকেটার তুলে এনেছে। যার ফলে তাদের দলে এখন গভীরতা, ক্লাস এবং প্রতিভা সবকিছুই আছে।’

আরও পড়ুন: ২০২৪ সালে বিসিবির কেন্দ্রীয় চুক্তিতে থাকছেন যারা

তবে আলাদা করে দক্ষিণ আফ্রিকার পেসার অ্যানরিখ নরকিয়ার ব্যাপারেও মন্তব্য করেছেন তিনি। নাসের বলেন, ‘আমি জানি না তার চোটের বর্তমান অবস্থা কী তবে আমি মনে করি তারা বিশ্বকাপের শেষ ভাগে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচগুলোয় অ্যানরিখ নরকিয়ার মত কাউকে মিস করছিল। ফলে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে যদি নরকিয়া ফিট থাকে তাদের দুর্দান্ত ব্যাটিং লাইনআপের সাথে, তাহলে আমি দক্ষিণ আফ্রিকার দিকে তাকিয়ে থাকব।’

এখন বিশ্বকাপ জেতা হয়নি দলটির। আইসিসির বড় আসর গুলোতে আসলেই কেমন জানি ছন্ন ছাড়া হয়ে যায় দলটি। বেশির ভাগ সময় সেমি ফাইনালে এসে বিদায় নেয় দলটি। অনেক শক্তিশালী দল নিয়েও আইসিসির বড় আসর গুলোতে তাসের ঘরের ভেঙে পড়ে তারা। তাইতো তাদের নামই দিয়ে দিয়েছে ‘চোকার্স’। তবুও আসন্ন বিশ্বকাপে প্রোটিয়াদের হাতেই শিরোপা দেখছেন নাসের।

তবে আসরের সেরা ক্রিকেটার হিসেবে দক্ষিণ আফ্রিকা বা ইংল্যান্ডের কোনো ক্রিকেটারকে তিনি বেছে নেননি। বেছে নিয়েছেন ভারতে তারকা ক্রিকেটার সূর্যকুমার যাদবকে।

তিনি বলেন, ‘টি-টোয়েন্টিতে পুরো বিশ্বের যার দিকে নজর রাখা উচিত সে হচ্ছে সূর্যকুমার যাদব। সে অনেকটাই পাগলাটে। সে অনেকটা মিস্টার ৩৬০ ডিগ্রির মত খেলে থাকে। কিছু শটে সে হয়ত পাগলাটে। কারণ ৫০ ওভারের ম্যাচে সে আসলে ভালোভাবে বুঝতে পারে কখন মারতে হবে আর কখন মারতে হবে না কিংবা কখন কী করতে হবে। কিন্তু টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে সে একদম ভালোভাবে জানে সবসময় যে, কখন কী করতে হবে। খেলাটিও বেশ মজার। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট এবং স্কাইয়ের (সূর্যকুমার যাদব) খেলা দেখা, একদম দারুণ মজার ব্যাপার।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *