Sunday, July 14, 2024
ক্রিকেটখেলা

পরিবারের সামনে হ্যাটট্রিক, নিজের অনুভূতি প্রকাশ করলেন শরিফুল

আজ থেকে শুরু হয়েছে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ বিপিএলের দশম আসর। বিপিএলের উদ্বোধনী ম্যাচে মুখোমুখি হয় কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স বনাম দুর্দান্ত ঢাকা। আসরের প্রথম ম্যাচে জয়ের দেখা পেয়েছে দুর্দান্ত ঢাকা। বর্তমান চ্যাম্পিয়ন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের বিপক্ষে ৫ উইকেটের জয় তুলে নিয়েছে দুর্দান্ত ঢাকা।

দুর্দান্ত ঢাকার জয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রেখেছেন বাংলাদেশের পেসার শরিফুল ইসলাম। শেষ তিন বলে তিন উইকেট নিয়ে আসরের প্রথম হ্যাটট্রিক করেন তিনি। হয়েছেন ম্যাচ সেরা। এই দিন মাঠে উপস্থিত ছিল তার পরিবারের সদস্যরা। যার ফলে তার আনন্দ দ্বিগুণ হয়ে গেছে। ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে নিজের প্রতিক্রিয়া জানালেন শরিফুল।

শরিফুল বলছিলেন, ‘আমি গত বছর যেভাবে শেষ করেছি, এবারও সেভাবে শুরু করতে চাই। আলহামদুলিল্লাহ প্রথম ম্যাচটা ভালো হয়েছে, চেষ্টা করব বাকিগুলোতেও এরকম পারফর্ম করার। আর মিরপুরের উইকেট আজকে একটু ভালো, খুব ভালো লাগতেছিল বল ক্যারি করতে। ভালো স্কোরিং উইকেট ছিল।’

দলের হয়ে যে কোনো পরিস্থিতিতে অবদান রাখতে চান তিনি। শরিফুল বলেন, ‘আসলে দলে খেলতে হলে প্রতিটি খেলোয়াড়ের সব রোলই দরকার, যখন যে রোলে আনবে সেটা পালন করা দরকার। আমরা চেষ্টা করি ওভাবে অনুশীলন করার। তো আলহামদুলিল্লাহ, চেষ্টা করতেছি, সফলতাও আসতেছে। ইনশা-আল্লাহ এটা এগিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করব।’

আরও পড়ুন:
প্রথম ম্যাচে মাশরাফি খেলবেন কিনা জানালেন মিঠুন
একই দিনে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ৪ তারকা ক্রিকেটারের অবসরের ঘোষণা
আগামীকাল ভারতের বিপক্ষে মাঠে নামছে বাংলাদেশ, দেখেনিন সময়

হ্যাটট্রিক পাওয়া নিয়ে নিজের অনুভূতি প্রকাশ করেন তিনি। শরিফুল বলেন ‘আলহামদুলিল্লাহ খুব ভালো অনুভূতি, বিশেষ করে আমার পরিবার আজকে মাঠে এসেছে প্রথম খেলা দেখতে এবং সেদিনই আমার হ্যাটট্রিক হয়েছে। এজন্য খুব ভালো লাগছে। যদিও চিন্তা-ভাবনায় হ্যাটট্রিক ছিল না, চিন্তা করেছি আমার হাতে তখন বল আছে আরও তিনটা। আমি ভালোভাবে ফিরে আসতে পারব। হয়তোবা এখান থেকে একটা উইকেট নিতে পারব। কিন্তু হ্যাটট্রিকটা… (হয়ে গেছে)। চেষ্টা করেছিলাম (উইকেট নিতে) ইমরুল ভাইয়ের সময়, এরপর আর করিনি।’

allnewsbd24 Google News ChanneIআলনিউজবিডি২৪ এর খবর পেতে ফলো করুন আমাদের গুগল নিউজ চ্যানেল।

টার্গেট দেখেই জয়ের আত্মবিশ্বাস ছিল ঢাকার বিষয়টি উল্লেখ করে শরিফুল বলেন, ‘লক্ষ্য ছিল যত বড় দলই হোক না কেন খেলাটা ২০ ওভারই হবে। ১১ জন খেলোয়াড়ই খেলতে পারবে, গোল বলের খেলা। এখানে যারা যত কম ভুল করবে তারাই ভালো করবে। এখানে বড় দল, ছোট দল বলতে কোনো কিছু নেই। আমরা যখন ড্রেসিংরুমে গিয়েছিলাম, আমরা সবাই বিশ্বাস করেছিলাম ম্যাচটা জিতব। লক্ষ্যটা আমাদের চেজের ভেতর আছে। আমরা যদি ভালো শুরু করি ইনশা-আল্লাহ জিতব। যেরকম শুরু চেয়েছিলাম ওটা আমাদের ব্যাটসমস্যানরা স্বপ্নের করেছিল।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *