‘বিভ্রান্তি সৃষ্টি করে উন্নয়নযাত্রা বাধাগ্রস্ত করবেন না’

‘বিভ্রান্তি সৃষ্টি করে উন্নয়নযাত্রা বাধাগ্রস্ত করবেন না’

নিজস্ব প্রতিবেদক:চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে বঙ্গবন্ধু অর্থনৈতিক অঞ্চলে হালদা নদী থেকে পানি উত্তোলন করা নিয়ে বিভ্রান্তি এবং মানুষের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝি সৃষ্টি না করার জন্য সবার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম।

শনিবার চট্টগ্রামে হোটেল রেডিসন ব্লু-তে আয়োজিত চীন সরকার থেকে অনুদান হিসেবে প্রাপ্ত এলইডি বাল্ব বিতরণের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এ আহ্বান জানান।

স্থানীয় সরকার মন্ত্রী বলেন, 'হালদা নদীতে যে পানির প্রবাহ রয়েছে তার থেকে মিরেরসরাই ইকোনমিক জোনের জন্য যে পরিমাণ পানি উত্তোলন করা হবে এতে নদী এবং মাছের প্রজননের কোনো সমস্যা হবে না বলে গবেষণায় উঠে এসেছে। দেশের উন্নয়নের জন্য ভ্রান্ত ধারণা ও মানুষের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝির সৃষ্টি করে উন্নয়নযাত্রা ব্যাহত হলে দেশের মানুষকে এর মূল্য দিতে হবে। তাই দেশের উন্নয়নের জন্য বিভ্রান্তি এবং ভুল বোঝাবুঝি সৃষ্টি না করে সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে।'

মিরসরাইয়ে ইকোনমিক জোনে ৩০ লাখ মানুষের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা হবে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, 'কক্সবাজার পর্যন্ত যে মেরিন ড্রাইভ নির্মাণ করা হবে এরফলে এই অঞ্চলে শতশত ফাইভ স্টার হোটেল-মোটেল হবে। লাখ লাখ ডলার বিনিয়োগ হওয়ার পাশাপাশি ট্যুরিজম সেক্টরে নতুন দিগন্তের উন্মোচন হবে। চট্টগ্রাম নগরীর যে সম্ভাবনা আছে তা কাজে লাগাতে হবে। এসবের জন্য গ্যাস, বিদ্যুৎ, পানি ছাড়াও বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা দরকার পড়বে তার জন্য এখন থেকে সব প্রস্তুতি নিতে হবে।'

তাজুল ইসলাম বলেন, ‘বাংলাদেশের উন্নয়ন করতে হলে চট্টগ্রামকে গুরুত্ব দিতে হবে। চট্টগ্রামের উন্নয়নের সঙ্গে বাংলাদেশের উন্নয়ন জড়িয়ে আছে।’ চট্টগ্রাম বন্দর না থাকলে এত দ্রুত বাংলাদেশের উন্নয়ন হতো না বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

চট্টগ্রামের সব জায়গায় উন্নয়ন করতে হবে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, 'সারা বিশ্বে অনেক দেশের বন্দর এবং সম্ভাবনা থাকলেও সুযোগ সুবিধা নেয়ার ক্ষেত্রে সেসব দেশ বাংলাদেশের তুলনায় অনেক পিছিয়ে আছে। চট্টগ্রামসহ দেশের সব জায়গার উন্নয়ন করতে হবে, তার জন্য সবাইকে স্ব স্ব জায়গা থেকে এগিয়ে আসতে হবে, কাজ করতে হবে।'

এসময় বন্ধুত্বের নিদর্শন স্বরূপ বাংলাদেশকে এলইডি বাল্ব সরবরাহ করায় চীন সরকারকে ধন্যবাদ জানান মন্ত্রী।

স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের প্রশাসক মোহাম্মদ খোরশেদ আলম সুজন, পরিচালক চট্টগ্রাম বিভাগ স্থানীয় সরকার মোহাম্মদ মিজানুর রহমান এবং চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আবদুস সালাম।

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশ সরকার এবং চীন সরকারের মধ্যে স্বাক্ষরিত চুক্তি অনুযায়ী চীন সরকার বাংলাদেশের জন্য অনুদান হিসেবে ১৩ হাজার ১২৫ প্যাকেট এলইডি বাল্ব পাঠিয়েছে। প্রতিটি প্যাকেটে একশটি করে বাল্ব রয়েছে। পর্যায়ক্রমে দেশের সকল উপজেলা, পৌরসভা এবং ইউনিয়ন পরিষদে বিতরণ করা হবে।