সরকার সভা-সমাবেশের অধিকার হরণ করেছে: আব্বাস

সরকার সভা-সমাবেশের অধিকার হরণ করেছে: আব্বাস

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক:সরকার সভা সমাবেশের অধিকার হরণ করেছে। বাইরে আমরা একটা সভা করবো সে অধিকারটুকু আমাদের নাই। আমাদের সেই অধিকার এই ফ্যাসিস্ট সরকার হরণ করে নিয়েছে। আমাদের সেই অধিকার আদায় করতে হবে।

বৃহস্পতিবার বিকেলে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের নিচে শ্রমিক দল আয়োজিত দোয়া ও মিলাদ মাহফিলে অংশ নিয়ে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস এসব কথা বলেন।

মির্জা আব্বাস বলেন, আমাদের কথা বলার অধিকার আদায় করতে হবে। রাজপথে মিছিল করার অধিকার আদায় করতে হবে। রাজপথে মিছিল করে ভোটের অধিকার আদায় করতে হবে। এ সরকারের পতনের ব্যবস্থা করতে হবে।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের নেতারা কাচের ঘরে বসে ঢিল ছুড়ছে। তাদের বলবো, দয়া করে কাচের ঘর থেকে বাইরে আসুন। পুলিশ, পেটুয়া বাহিনী না নিয়ে স্বাভাবিক চলাফেরা করুন। দেখুন, মানুষ আপনাদের ফুল দেয় না থুথু দেয়। আপনাদের থুথু দেবে। আমরা এখনও যেখানে যাই, আল্লাহর রহমতে মানুষ আমাদের ফুল দেয়।

তিনি বলেন, এক সময় শ্রমিক দলের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করেছি। তখন শ্রমিক দল ছিল খুব শক্তিশালী। ছাত্রদল তার অবস্থানে খুব শক্তিশালী ছিল। তখন যুবদল, ছাত্রদল ও শ্রমিক দল ছাড়া কোনো আন্দোলন হতো না। কিন্তু এখন সেই শ্রমিক দল নেই।

মির্জা আব্বাস বলেন, আমরা তখন পদ-পদবির পেছনে দৌড়াইনি। পদ-পদবি আমাদের পেছনে দৌড়েছে। আমাদের কাজ করতে কোনো পদ দরকার হয়নি। এখন শুনছি মাছ খায়, বিকাশ খায়। আমাদের দলে এগুলো ঢুকে গেছে। এগুলো থেকে আমাদের বেরিয়ে আসতে হবে। আন্দোলনের জন্য প্রস্তুত হতে হবে। এ সময় তিনি শ্রমিক দল পুনর্গঠনের ব্যাপারেও আশ্বাস দেন।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবদলের সভাপতি কাজী আমীর খসরুর সভাপতিত্বে ও মহানগর উত্তর শ্রমিক দলের সভাপতি খন্দকার জুলফিকার মতিনের সঞ্চালনায় দোয়া ও মিলাদ মাহফিলে আরও উপস্থিত ছিলেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির আহ্বায়ক আব্দুস সালাম, বিএনপির সহ-শ্রমবিষয়ক সম্পাদক হুমায়ুন কবির খান, মামুনুজ্জামান ফিরোজ মোল্লা, শ্রমিক দলের উপদেষ্টা আবুল খায়ের খাজা প্রমুখ।