লকডাউনে ঢাকায় গ্রেফতার ৭০৮ জন, জরিমানা প্রায় ১১ লাখ

লকডাউনে ঢাকায় গ্রেফতার ৭০৮ জন, জরিমানা প্রায় ১১ লাখ

নিজস্ব প্রতিবেদক:কঠোর লকডাউনের ১১তম দিনে সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে বাইরে বের হয়ে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) হাতে গ্রেফতার হয়েছেন ৭০৮ জন। ১৮৪ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে জরিমানা করা হয়েছে ৫ লাখ ৩৮ হাজার ৬৮০ টাকা।

এছাড়া ট্রাফিক বিভাগ ২৪৪টি গাড়ির বিরুদ্ধে জরিমানা করা হয়েছে ৫ লাখ ৫২ হাজার ৫০০ টাকা। এখন পর্যন্ত রাজধানীতে মোট গ্রেফতার হয়েছেন ৭ হাজার ৩৪৮ জন।

রোববার (১১ জুলাই) লকডাউনের ১১তম দিনে অভিযানে এসব ব্যক্তির বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয় ডিএমপির আটটি বিভাগ।

ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) ইফতেখায়রুল ইসলাম এসব তথ্য জানান।

তিনি বলেন, লকডাউনের ১১তম দিনে সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত ডিএমপির আটটি বিভাগের রমনা, লালবাগ, মতিঝিল, ওয়ারী, তেজগাঁও, মিরপুর, গুলশান ও উত্তরা এলাকায় সরকারি নিয়ম অমান্য করে বাইরে বের হওয়ায় ৭০৮ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

লকডাউনে সড়কে যানবাহন নিয়ে বের হওয়ায় ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালত ও ট্রাফিক বিভাগ ২৪৪টি গাড়ির বিরুদ্ধে মামলায় জরিমানা করা হয়েছে ৫ লাখ ৫২ হাজার ৫০০ টাকা।

তিনি আরও বলেন, সরকার করোনার সংক্রমণরোধে চলমান বিধিনিষেধ বাস্তবায়নে আজ ১১তম দিনেও রাজধানীজুড়েই সক্রিয় ছিল আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী। রাজধানীতে সরকারি বিধিনিষেধ উপেক্ষা করে অকারণে ও নানা অজুহাতে ঘর থেকে বের হওয়ায় ও লকডাউনেও প্রতিষ্ঠান খোলা রাখায় ১৮৪ জনকে ৫ লাখ ৩৮ হাজার ৬৮০ টাকা জরিমানা করা হয়।

উল্লেখ্য, শনিবার গ্রেফতার হন ৭৯১ জন। ২১২ জনকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে জরিমানা করা হয় ১ লাখ ৬৬ হাজার ৪৫০ টাকা। এছাড়া ট্রাফিক বিভাগ কর্তৃক ৩৬১টি গাড়ির বিরুদ্ধে মামলায় জরিমানা করা হয় ৯ লাখ ৪ হাজার ৫০০ টাকা।

গতকাল শুক্রবার গ্রেফতার হয়েছিলেন ৫৮৫ জন। ১২৯ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে জরিমানা করা হয়েছিল ১ লাখ ৫৬ হাজার ৭৫০ টাকা। এছাড়া ট্রাফিক বিভাগ কর্তৃক ৪১৪টি গাড়ির বিরুদ্ধে মামলায় জরিমানা করা হয়েছিল ৮ লাখ ৯২ হাজার ৫০০ টাকা।