রাজশাহী রেলস্টেশনের সেই মাস্টার গ্রেফতার

রাজশাহী রেলস্টেশনের সেই মাস্টার গ্রেফতার

রাজশাহী ব্যুরো:গৃহবধূকে ধর্ষণের মামলায় রাজশাহী রেলস্টেশনের সেই মাস্টার অবশেষে নাটোর থেকে গ্রেফতার হলেন।  

বৃহস্পতিবার (৪ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে তাকে রাজশাহী আদালতে পাঠিয়েছে পুলিশ।
 

নাটোরের মাধনগর রেলওয়ে স্টেশন থেকে বুধবার (৩ ফেব্রুয়ারি) গভীর রাতে তাকে গ্রেফতার করে বোয়ালিয়া মডেল থানা পুলিশ। পরে তাকে রাজশাহী নিয়ে আসা হয়।

গ্রেফতার হওয়া রেলস্টেশন মাস্টারের নাম মঈন উদ্দিন আজাদ।  

এর আগে গত ১৯ জানুয়ারি রাজশাহী মহানগরীর বোয়ালিয়া মডেল থানায় তার বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা দায়ের করেন এক গৃহবধূ।  

মামলার এজাহারে তিনি উল্লেখ করেন, ট্রেনে যাতায়াতের সূত্র ধরেই ওই স্টেশনমাস্টারের সঙ্গে তার পরিচয় হয়। এরপর সখ্যতা থেকে রেলওয়েতে চাকরির দেওয়ার প্রস্তাব করেন আজাদ। এরইমধ্যে বিষয়টি নিয়ে তাদের মধ্যে ফেসবুক মেসেঞ্জারে কথা হতে থাকে। আজাদ ওই নারীকে জানান, চাকরির জন্য ঘুষ হিসেবে আট লাখ টাকা লাগবে। তিনি আগাম দুই লাখ টাকাও নিয়েছিলেন। পরে চাকরির নিয়োগ পরীক্ষার প্রস্তুতির বই দেওয়ার নামে নিজ বাসায় ডেকে নিয়ে ওই নারীকে ধর্ষণ করেন মঈন উদ্দিন আজাদ। ধর্ষণের পর ঘটনাটি কাউকে জানালে বড় ধরনের ক্ষতির হুমকিও দেন তিনি। কিন্তু কোনো উপায় না পেয়ে ভুক্তভোগী নারী তার বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা করেন। ওই মামলার প্রেক্ষিতে আজাদকে বুধবার রাতে নাটোরের নলডাঙ্গার মাধনগর স্টেশন থেকে গ্রেফতার করা হয়।

রাজশাহীর বোয়ালিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নিবারণ চন্দ্র বর্মন বলেন, মহানগরীর শিরোইল কলোনির এক গৃহবধূর অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে অভিযুক্ত মঈন উদ্দিন আজাদকে (৪২) গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল গ্রেফতার করেছে। তিনি রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশনের স্টেশনমাস্টার পদে কর্মরত। মামলার পর থেকে তিনি পলাতক ছিলেন। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে বুধবার রাতে পুলিশ নাটোরের মাধনগর স্টেশন থেকে তাকে গ্রেফতার করে।

পরে তাকে রাজশাহী নিয়ে আসা হয়। ধর্ষণ মামলায় প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে দুপুরে তাকে আদালতে পাঠানো হয়েছে বলেও জানান বোয়ালিয়া থানার এই পুলিশ কর্মকর্তা।