বাকপ্রতিবন্ধী ভ্যানচালকের ক্ষত-বিক্ষত লাশ উদ্ধার

বাকপ্রতিবন্ধী ভ্যানচালকের ক্ষত-বিক্ষত লাশ উদ্ধার

মাদারীপুর প্রতিনিধি:মাদারীপুরে বাকপ্রতিবন্ধী ভ্যানচালক জুয়েল বেপারীর (৩২) লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। মাদারীপুর সদরের গাছবাড়ীয়া এলাকার কলবাগান থেকে রবিবার সকাল ৮টার দিকে এ লাশ উদ্ধার করা হয়।

লাশের শরীরে একাধিক ছুরির আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। পরিবারের দাবি, এটি পরিকল্পিত হত্যা।

নিহত জুয়েল বেপারী সদর উপজেলার গাছবাড়ীয়া এলাকার আজমত বেপারীর ছেলে। তার স্ত্রী ও একটি সন্তান রয়েছে। এই ঘটনায় ওই এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, দুই দিন আগে গাছবাড়ীয়া একটি বিয়ে বাড়িতে নাচগান করে জুয়েল বেপারী। পরের দিন একই বাড়িতে খাবারের অনুষ্ঠান শেষে রাত ১২টার দিকে মস্তফাপুর বাসস্ট্যান্ড আবুল হোটেল থেকে রুটি ও ডিম-ভাজি নিয়ে যেতে দেখা যায়। রবিবার সকালে গাছবাড়ীয়া একটি পরিত্যক্ত কলাবাগানে জুয়েল বেপারীর লাশ দেখতে পায় স্থানীয়রা। পরে সদর থানা পুলিশকে খবর দিলে, তারা এসে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্যে মর্গে পাঠিয়েছে। নিহতের ভ্যানটিও উদ্ধার করেছে পুলিশ।

এ বিষয়ে মায়ের দোয়া হোটেলের কর্মচারী তোতা মিয়া বলেন, গত শনিবার রাতে আমার কাছ থেকে গাছাবাড়ীয়া খোকন ও হাবিব এসে চারটি রুটি, দুইটি ডিম ও ভাজি নিয়ে গেছে। সেসময় সে দোকানে সামনে ভ্যানের উপরে বসা ছিল এবং নাস্তা নিয়ে ভ্যানে করে তারা চলে যায়। এর পরের কিছুই জানি না।

নিহত জুয়েলের বাবা আছমত বেপারী জানান, ‘আমার ছেলের কোন শত্রু নাই। আমার অনেক শক্র আছে, তাই হয়তো আমার ছেলেকে মেরে ফেলেছে। আমি যশোর আছি, মাদারীপুর এসে থানায় অভিযোগ করব। আমি এ হত্যার বিচার চাই।’

মাদারীপুর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) এহসানুর রহমান ভূইয়া জানান, ‘আমরা প্রাথমিকভাবে ধারণা করছি, এই ছেলেটিকে অন্য কোনো স্থানে মৃত্যু নিশ্চিত করে এখানে ফেলে রাখা হয়েছে।’